‘বক্তামি’ এখন যেভাবে পেশাদার কাজে পরিণত হয়েছে, কয়েকদিন পর দেখবেন এটা একটা গালিতে নিপতিত হবে—লিখে রাখেন! মানুষ একজন আরেকজনকে ‘বক্তা’ বলে কিংবা বক্তার নাম বলে গালি দেবে।

যারা মাদরাসায় পড়ছেন কিংবা খুব শিগগির মাদরাসা থেকে পাশ করে সমাজের মূল স্রোতে গিয়ে ভিড়বেন, কিংবা তরুণ আলেম যারা—বক্তামিকে পেশা হিসেবে নেয়ার চিন্তা-ভাবনা এখন থেকেই মাথা থেকে ঝেড়ে ফেলুন।

যদি কোথাও কখনো হেদায়েতি কথা বলার প্রয়োজন হয় তাহলে নিজ পকেটের টাকা খরচ করে যাবেন, হৃদয়ের তড়প নিয়ে দ্বীনের কথা বলবেন, তারপর নিজের পকেটের টাকা খরচ করে বাসায় চলে আসবেন। যাদের জন্য হেদায়েতের কথা বললেন তাদের থেকে এক টাকাও নেবেন না। দেখবেন, মানুষের হেদায়েতের জন্য কথা বলে আপনি কতটা তৃপ্তি অনুভব করছেন, যারা শ্রোতা—তারাও আপনার কথায় কতটা প্রভাবিত হচ্ছে।

নিজ খরচে মানুষের মাঝে দ্বীনের কথা বলার সংস্কৃতি গড়ে তুলুন, মানুষ আপনাকে হৃদয় দিয়ে ভালোবাসবে। আপনাদের এই সংস্কৃতি একদিন উপমায় পরিণত হবে।


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *