কেন নগরমুখী হল বাংলাসাহিত্য

বাংলা সাহিত্যের একটা বড় ছন্দপতন—সাহিত্য গ্রাম ছেড়ে নগরমুখী হয়েছে এবং তৃণমূল চারণ কবিদের স্থান দখল করেছেন শিক্ষিতশ্রেণি। এখন কবি-লেখক বলতেই শিক্ষিত হওয়া বাঞ্চনীয়। এটা সাহিত্যকে বিকেন্দ্রিত করে ফেলেছে। কিন্তু হাজার বছরের বাংলা সাহিত্যের ইতিহাসে কবিদের সঙ্গে শিক্ষার তেমন কোনো সম্পর্ক ছিল না। যার হৃদয়জ ভাব-ব্যঞ্জনা তীক্ষ্ণ ও গভীর হতো, সে-ই Read more…

কাকে বলি আলেম, আর কাকে বলি মুসলিম

বর্তমান মুসলিমদের মধ্যে আলেমের কমতি নেই, হাফেজের কমতি নেই, স্কলার-চিন্তাবিদের কমতি নেই, সাহসী মুজাহিদের কমতি নেই, তাহাজ্জুদগোজার আবেদের কমতি নেই, পবিত্র মা ও বোনের কমতি নেই, ধর্মীয় কথা বলার মতো ওয়ায়েজ আর শোনার মতো শ্রোতার অভাব নেই, ইসলামি লেখক আর পাঠকের কমতি নেই; কিন্তু সচ্চরিত্রবান মুসলিম লাখে একজন খুঁজে পাবেন Read more…

দ্বীনের দাঈ হতে হলে

সারা দেশে অধিক হারে মক্তব প্রতিষ্ঠা করুন! শহরের প্রতিটি মহল্লায়, মফস্বলের প্রতিটি গ্রামে ইসলামি ও সাধারণ শিক্ষার সমন্বিত আধুনিক সিলেবাসভিত্তিক মক্তব প্রতিষ্ঠা সমাজ বিপ্লবের জন্য অত্যন্ত জরুরি পদক্ষেপ। ঢাকা শহর বা নগরকেন্দ্রিক বড় প্রতিষ্ঠানে চাকরির চিন্তা বাদ দিয়ে যার যার এলাকায় চলে আসুন। আপনার নিজের জনপদে দীনিশিক্ষার অভাবে শিশুরা কিন্ডারগার্টেনে Read more…

পশ্চিমের সেক্সুয়াল ফ্যান্টাসি

vice.com-এ ইসলামের সেক্স এডুকেশন বিষয়ে একটা আর্টিকেল পড়লাম। এই আর্টিকেল পশ্চিমের কাছে হয়তো খুবই আশ্চর্যবোধক বা সুড়সুড়ি জাগানিয়া, কিন্তু প্রাচ্যের সমাজে এখানকার কথা তো সবই ডালভাত। হুজুররা মহফিলে শত শত বছর ধইরা এগুলা বলতেছে। পশ্চিমের বড় সমস্যা হলো তাদের বস্তুবাদ। সেক্স জিনিসটা তো তাদের কাছে একটা বিরাট বস্তু, জীবনের অনেক Read more…

কেন ইসলামের নাম করে ঘৃণা পুষছেন

‘কাল একুশে ফেব্রুয়ারি। গাঁজাখোররা বেদম ফুল কিনছে। পরশু এই ফুলগুলোর ওপরই প্রস্রাব করবে, ব্যবহৃত কনডম ফেলবে।’আজ সকালে (২০ ফেব্রুয়ারি ২০২০) এ পোস্টটি আমার চোখে পড়ল। যিনি লিখেছেন তিনি সমাজের সম্মানিত ব্যক্তি বলে বিবেচিত এবং আমার পরিচিত। তাঁকে উদ্দেশ্য করে নিজের আত্মশুদ্ধির জন্য কিছু কথা বলি— ভাই, যে গাঁজাখোর লোকটি কাল Read more…

ধর্মরক্ষার নামে বকধার্মিকের দল

ফেসবুক ওয়াল ভরে গেছে আল্লামা আর বুজুর্গব্যক্তিবর্গ দিয়ে। তারা এতোটাই ধার্মিক, ধর্মের সামান্য ‘এহানত’ তারা বরদাশত করতে পারে না। ইসলাম ধর্মকে এরা একটা পৈতৃক সম্পত্তি বানিয়ে নিয়েছে। তারা ছাড়া কেউ ইসলাম নিয়ে কথা বলতে পারবে না! তারা যেখানে খুশি যেভাবে ইচ্ছা ইসলামকে ব্যবহার করবে। এতে ইসলাম ও মুসলমানদের ক্ষতি হচ্ছে Read more…

রাষ্ট্রের মায়রে বাপ!

সীমানাসাশিত দেশপ্রেম হচ্ছে আধুনিক পৃথিবীর সবচে বর্বর দাসত্ব৷ এই ‘সোনার বাংলা’ বা ‘ভারতভাগ্যবিধাতা’ দিয়ে যে দেশপ্রেমের সবক রাষ্ট্র কর্তৃক শেখানো হয়, তা দিয়ে মূলত আমাকে ঘৃণা করতে শেখানো হলো— তোর দেশ বাদে দুনিয়ার তাবৎ জাতি ভালোবাসার অযোগ্য৷ কী আশ্চর্য! কাগজের মানচিত্রে একটা রেখা টেনে বলে দিলেন— তোর ভালোবাসার সীমানা ছাপ্পান্ন Read more…

বুদ্ধং শরণং গচ্ছামি

ধর্ম এবং জাতিসত্তা— এ দুটোর উল্টো চিত্রটা আপনাকে বুঝতে হবে। একপিঠে লেখা থাকবে— মানবতা, ইনসানিয়্যাত, হিউম্যানিটি; অপরপাশে একদল লোক নিজ গরজে লিখে নিবে— ধর্মহত্যা, জাতিবিদ্বেষ, অমানবিকতা, চরমপন্থা। ধর্ম এবং জাতিসত্তা— এ দুটো অভিধা অধিকাংশেই পরস্পরের সাংঘর্ষিক। হোক সেটা বৌদ্ধধর্ম, হিন্দুধর্ম, ক্রিশ্চিয়ান কিংবা ইসলাম। কেননা জাতিসত্তার অহংবোধ মানেই হলো অপর জাতিকে Read more…

ক্ষুদ্র চিন্তার গণ্ডি থেকে বের হয়ে আসুন

কখনো ক্ষুদ্র চিন্তা করবেন না। নিজেকেও নিয়েও না, অন্যকোনো বিষয় নিয়েও নয়। যখনই চিন্তা করবেন, অবশ্যই বৃহত কিছু চিন্তা করবেন। উদাহরণ দেই। একটা বই লিখবেন। আপনার বইয়ের পাঠক কারা? ধরলাম আপনি মাদরাসার ছাত্র বা মাদরাসা থেকে পাশ করা একজন মওলানা-লেখক। এই দৃষ্টিকোণ থেকে আপনি চিন্তা করছেন যে আপনার বইয়ের পাঠক Read more…

ধর্মীয় শিক্ষা শিকড়ে ফিরবে

ধর্মীয় শিক্ষার ব্যাপারে আমার মনে হয় শিকড়ে ফিরে যাবার সময় এসেছে। প্রতিষ্ঠানকেন্দ্রিক পড়াশোনার পরিবর্তে ‘শিক্ষককেন্দ্রিক’ পড়াশোনা ধর্মীয় বিদ্যার্জনের জন্য সবদিক থেকে উত্তম। সাধারণ্যের জন্য আবশ্যিক ধর্মীয় শিক্ষার নানা প্রতিষ্ঠান থাকতে পারে, কিন্তু যারা ধর্মবেত্তা হবেন, তাদের জন্য গুরুমুখী জ্ঞানার্জনের বিকল্প কখনো মাদরাসা বা প্রতিষ্ঠান হতে পারে না। প্রতিষ্ঠানের অনেক বিধি-নিষেধ Read more…